স্ত্রীর মামলায় কারাগারে
চাপাতি হাতে শ্বশুরবাড়িতে সুজন দাশ

চাপাতি

বাংলাদেশ মেইল ::

চাপাতি হাতে শ্বশুরবাড়িতে হাজির হয়ে চাঞ্চল্যের সৃস্টি করেছেন সুজন দাশ নামের এক যুবক। শনিবার রাতে নগরের পূর্ব গোসাইলডাঙ্গা এলাকায় এমন ঘটনা ঘটে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে সুজনের চাপাতিসহ ছবি৷

দুই হাতে চাপাতি নিয়ে শ্বশুরবাড়িতে এসে সুজন দাশ  চিৎকার করতে থাকেন। বাসার দরজায় আঘাত করেন। সিসি ক্যামেরায় এমন এই দৃশ্য দেখতে পেয়ে ঘরের ভেতর থেকে আসবাব দিয়ে দরজা লাগিয়ে দেন সুজনের স্ত্রী সুতৃষ্ণা দাশের পরিবারের লোকজন।

ততক্ষণে ঘটনাস্থলে চলে আসে পুলিশ। পুলিশ দেখে আত্মহত্যার হুমকি দেয় সুজন দাশ । পরে  সুজনকে বুঝিয়ে তাঁর কাছ থেকে চাপাতি দুটি জব্দ করে পুলিশ।

চট্টগ্রামের ডবলমুরিং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ মহসীন  বলেন, ১৩ বছর আগে সুজনের বিয়ে হয় সুতৃষ্ণা দাশের সঙ্গে। তাঁদের দুটি সন্তানও রয়েছে। তাঁরা আসকার দীঘি এলাকায় থাকেন। সুজনের অনৈতিক সম্পর্কের অভিযোগে তাঁর স্ত্রী তিন দিন আগে বাবার বাড়ি চলে আসেন।এতে ক্ষিপ্ত হয়ে চাপাতি নিয়ে শ্বশুরের বাসায় আসেন সুজন। ওই সময় তিনি স্ত্রীকে সঙ্গে নিয়ে যেতে চান। স্ত্রী রাজি না হওয়ায় চাপাতি দিয়ে দরজায় কোপাতে থাকেন।

ওসি মোহাম্মদ মহসীন জানান, এ ঘটনায় সুজনের বিরুদ্ধে আত্মহত্যার চেষ্টা, হত্যাপ্রচেষ্টা ও হুমকি প্রদর্শনের অপরাধে মামলা করেছেন তাঁর স্ত্রী সুতৃষ্ণা। স্ত্রীর করা মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে রোববার বিকেলে আদালতের মাধ্যমে তাঁকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

সুতৃষ্ণার পারিবারিক সুত্র জানিয়েছে, উগ্র মেজাজের কারনে প্রায়ই ঝগড়াঝাটি করতো সুজন দাশ। ঝগড়ার মাঝখানে আত্নহননের হুমকি দেয়াও তার স্বভাবে পরিণত হয়েছে।