চট্টগ্রামে গভীর শ্রদ্ধায় বঙ্গবন্ধুকে স্মরণ

বঙ্গবন্ধুকে স্মরণ
বাংলাদেশ মেইল::
শতাব্দীর শ্রেষ্ঠ বাঙালী জাতির জনক শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৬তম শাহাদাতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবসে গভীর শ্রদ্ধায় বঙ্গবন্ধুকে স্মরণ করেছে চট্টগ্রামের মানুষ। রোববার ভোরের আলো ফোটার সাথে সাথেই কালো রঙের ব্যানারে জাতির জনকের প্রতিকৃতির কাছে ছুটে যান চট্টগ্রামের বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ। সকালের আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয় বিভাগীয় কমিশনারের পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে।
বঙ্গবন্ধুকে স্মরণ ও শ্রদ্ধা জানাতে রোববার (১৫ আগস্ট) সূর্যোদয়ের সঙ্গে সঙ্গে সব সরকারি, আধাসরকারি ও স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত করে উত্তোলন করা হয়। নগর ও উপজেলাজুড়ে মাইকে প্রচার করা হয় বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণ ও দেশাত্মবোধক গান। ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানগুলো আয়োজন করা হয় প্রার্থণার।
দিনের শুরুতে সকাল ৯টায় নগরের শিল্পকলা একাডেমি প্রাঙ্গণে জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণের মধ্য দিয়ে দিনের কর্মসূচির শুরু করেন চট্টগ্রামের বিভাগীয় কমিশনার মো. কামরুল হাসান ও জেলা প্রশাসক মো. মমিনুর রহমান। এ সময় বিউগলে বেজে ওঠে করুণ সুর। চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের (সিএমপি) একটি চৌকস দল এ সময় সশস্ত্র সালাম জানায়।

এরপর চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার সালেহ মোহাম্মদ তানভীর, জেলা সিভিল সার্জন অফিস, চট্টগ্রামের নৌ পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোমিনুল ইসলাম ভূঁইয়ার নেতৃত্বে নৌ পুলিশ,  মহানগর মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড, সরকারি-বেসরকারি কর্মকর্তা, আওয়ামী লীগ ও  অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান।

এদিকে হালিশহর বড়পোলে চসিক নির্মিত জাতির জনকের ভাস্কর্যে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানায় চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগ। ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মাহতাব উদ্দীন চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দীনসহ নগর আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা এসময় উপস্থিত ছিলেন।

একই সময়ে চসিকের প্রধান কার্যালয়ের সামনে নির্মিত জাতির জনকের মূর‌্যালে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান মেয়র রেজাউল করিম চৌধুরীসহ চসিকের কর্মকর্তারা।এসময় ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্টের শহীদদের স্মরণে এ সময় বিশেষ মোনাজাতও অনুষ্ঠিত হয়।

১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট ভোররাতে সেনাবাহিনীর কতিপয় বিপথগামী সদস্য বঙ্গবন্ধুকে তাঁর ধানমন্ডির বাসভবনে সপরিবারে হত্যা করে। ঘাতকেরা শুধু বঙ্গবন্ধুকেই হত্যা করেনি, তাদের হাতে একে একে প্রাণ হারিয়েছেন বঙ্গবন্ধুর সহধর্মিণী বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা, বঙ্গবন্ধুর সন্তান শেখ কামাল, শেখ জামাল, শিশু শেখ রাসেলসহ পুত্রবধূ সুলতানা কামাল ও রোজি জামাল।