খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে নাইকো দুর্নীতি মামলায় আংশিক চার্জ শুনানি ১৪ সেপ্টেম্বর

দুর্নীতি মামলায়

বাংলাদেশ মেইল::

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে নাইকো দুর্নীতি মামলায় আংশিক চার্জ গঠনের শুনানির তারিখ আগামী ১৪ সেপ্টেম্বর দিন ধার্য করেছেন আদালত। ঢাকার ৯ নম্বর (অস্থায়ী)  বিশেষ জজ শেখ হাফিজুর রহমান এ দিন ধার্য করেন।বৃহস্পতিবার (২ সেপ্টেম্বর) খালেদা জিয়ার অন্যতম আইনজীবী জয়নুল আবেদীন মেসবাহ এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, করোনাভাইরাসের জন্য নিয়মিত আদালত ছিলো না। এছাড়া খালেদা জিয়া শারীরিকভাবে অসুস্থ। তিনি ঠিকমত হাঁটাচলা করতে পারেন না। আর্থাইটিসসহ নানা অসুখের জটিলতায় তিনি ভুগছেন। এ অবস্থায় তার পক্ষে সরাসরি আদালতে হাজির হওয়া খুব কঠিন হয়ে দাঁড়িয়েছে। তারপরও আমরা চেষ্টা করব তাকে আদালতে হাজির করা যায় কিনা। এখন পর্যন্ত প্রায় অর্ধশতাধিক বার তারিখ পড়লেও শারিরীক অসুস্থতার কারণে তিনি আদালতে হাজির হতে পারেন নাই।

তিনি আরও বলেন, ‘গত ৬ মে মামলাটির অভিযোগ গঠনের জন্য দিন ধার্য ছিল। করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে আদালতের স্বাভাবিক বিচার কাজ বন্ধ থাকায় ওই দিন চার্জ গঠন শুনানি হয়নি। বিচারিক কার্যক্রম স্বাভাবিক হওয়ায় বিচারক নতুন এ দিন ধার্য করেছেন।’

কানাডার কোম্পানি নাইকোর সঙ্গে অস্বচ্ছ চুক্তির মাধ্যমে রাষ্ট্রের আর্থিক ক্ষতি ও দুর্নীতির অভিযোগে খালেদা জিয়াসহ পাঁচ জনের বিরুদ্ধে ২০০৭ সালে তেজগাঁও থানায় মামলাটি দায়ের করে দুদক। পরের বছরের ৫ মে ওই মামলায় খালেদা জিয়াসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেন দুদকের সহকারী পরিচালক এস এম সাহেদুর রহমান। অভিযোগপত্রে প্রায় ১৩ হাজার ৭৭৭ কোটি টাকার রাষ্ট্রীয় ক্ষতির অভিযোগ আনা হয়।

২০১৭ সালের ২০ নভেম্বর দুর্নীতি দমন কমিশনের স্পেশাল পাবলিক প্রসিকিউটর মোশাররফ হোসেন কাজল আদালতে খালেদা জিয়াসহ মামলার ১১ আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের আবেদন জানান।

বিএম/দুর্নীতি মামলায়