নাশকতা মামলায় জামিন পেলেন বিএনপির ১৫ নেতা

বাংলাদেশ মেইল::

চট্টগ্রাম নগরীর কাজীর দেউড়ি নাসিমন ভবন দলীয় কার্যালয়ের সামনে পুলিশ-বিএনপির সংঘর্ষের পর পুলিশের দায়ের করা নাশকতা মামলায় জামিন পেয়েছেন কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবের রহমান শামীমসহ ১৫ নেতা।বুধবার বেলা সাড়ে ৩টার দিকে হাইকোর্টের বিচারপতি হাবিবুল গনি ও রিয়াজ উদ্দীন খানের আদালত শুনানি শেষে তাদের জামিন মঞ্জুর করেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন চট্টগ্রাম নগর বিএনপির সাবেক সহ-দপ্তর সম্পাদক ইদ্রিস আলী। মামলা পরিচালনা করেছেন- ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দীন খোকন, ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল, অ্যাড. আশরাফ জালাল খান মনন ও ব্যারিস্টার মাহদীন চৌধুরী।

চট্টগ্রাম নগর বিএনপির সাবেক সহ-দপ্তর সম্পাদক ইদ্রিস আলী বলেন, গত ২৯ মার্চ চট্টগ্রামে বিএনপির সমাবেশ চলাকালে পুলিশ হামলায় কোতোয়ালী থানায় দুটি মামলা করা হয়। মামলা দুটিতে আজ হাইকোর্ট থেকে ১৫ নেতা জামিন পেয়েছেন।

জামিনপ্রাপ্ত বাকি ১৪ নেতা হলেন- চট্টগ্রাম নগর বিএনপির সদস্য সচিব আবুল হাশেম বক্কর, দক্ষিণ জেলা বিএনপির আহ্বায়ক আবু সুফিয়ান, নগর বিএনপির যুগ্ম-আহ্বায়ক এসএম সাইফুল আলম, নাজিমুর রহমান, ইয়াছিন চৌধুরী লিটন, মো. শাহ আলম, সদস্য আনোয়ার হোসেন লিপু, গাজী সিরাজ উল্লাহ, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি এইচএম রাশেদ খান, সাধারণ সম্পাদক বেলায়েত হোসেন বুলু, সাংগঠনিক সম্পাদক জিয়াউর রহমান জিয়া, মহানগর ছাত্রদলের আহ্বায়ক সাইফুল আলম, সদস্য সচিব শরীফুল ইসলাম তুহিন ও যুগ্ম-আহবায়ক আসিফ চৌধুরী লিমন।

উল্লেখ্য, গত ২৯ মার্চ নগরীর নাসিমন ভবনের দলীয় কার্যালয়ের সামনে বিএনপির বিক্ষোভ সমাবেশে পুলিশের সাথে নেতাকর্মীদের সংঘর্ষ হয়। এ সময় দলীয় কার্যালয়ে অভিযান চালিয়ে নগর মহিলা দলের সভানেত্রী মনোয়ারা বেগম মণিসহ ১৫ নেতা কর্মীকে আটক করে পুলিশ। পরে পুলিশ বাদী হয়ে বিএনপির চট্টগ্রাম বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবুর রহমান শামীম, নগর বিএনপির আহ্বায়ক ডা. শাহাদাত হোসেনসহ ৫৭ জনের নাম উল্লেখ করে বিস্ফোরকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ ও বিশেষ ক্ষমতা আইনে দুইটি মামলা দায়ের করেন। ঘটনার দিন নগরীর বেসরকারি ন্যাশনাল হাসপাতাল থেকে ডা. শাহাদাত হোসেনকে গ্রেপ্তার করা হয়।