হাটহাজারীতে দেয়াল নির্মাণকে কেন্দ্র করে কোপাকুপি

বাংলাদেশ মেইল ::

চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে স্নান কক্ষের দেয়াল নির্মাণকে কেন্দ্র করে আপন ভাইদের মধ্যে কোপাকুপির ঘটনা ঘটেছে।

বৃহস্পতিবার (২৪শে মার্চ) দুপুর আড়াইটার দিকে উপজেলার গুমানমর্দন ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের বড়ুয়াপাড়া মহাজন বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। উক্ত ঘটনায় গুরুতর আহত হন, গিন্নি বড়ুয়া (৬০), মানিক বড়ুয়া (৬৫), তুষার বড়ুয়া (৫৫) মৃত হরেন্দ্র মোহন বড়ুয়া।

স্থানীয় সূত্রে জানাযায়, গিন্নি বড়ুয়া ও তার দুই ভাই মানিক বড়ুয়া ও তুষার বড়ুয়া বাবার ভিটায় পরিবার নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বসবাস করে আসছে। তাদের পৈত্রিক সম্পত্তির এখনো ভাগবাটোয়ারা হয়নি। এমতাবস্থায় স্নান কক্ষ নির্মাণকে কেন্দ্র করে গিন্নি বড়ুয়া ও তুষার বড়ুয়ার মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এর এক পর্যায়ে কোদাল দিয়ে কুপাকুপির ঘটনা ঘটে। পরবর্তীতে তার ভাই মানিক বড়ুয়া ঝগড়া থামাতে গেলে তাকেও কুপিয়ে জখম করে ছোট ভাই। তিন ভাইয়ের কোপাকুপির মাঝে ছোট ভাই তুষার বড়ুয়া বেশি আঘাত প্রাপ্ত হয়। সেও তার ভাইয়েরা ইউনিয়ন পরিষদে ছুটে গেলে ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান প্রথমে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে যাওয়ার পরামর্শ দেন।

এদিকে গিন্নি বড়ুয়ার স্ত্রী জানান, তাদের দুই ভাইয়ের মধ্যে দ্বন্দ্বের জেরে ইউনিয়ন পরিষদে কয়েকদিন আগে একটি বৈঠক হয়। যেখানে প্রথম অবস্থায় কাজ বন্ধ রাখার কথা জানালেও পরবর্তীতে দুই পক্ষের মধ্যে আলোচনা সাপেক্ষে কাজ করার অনুমতি দেন স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান। অনুমিত পেয়ে সকালে পুনরায় কাজ শুরু করা হয়। সকাল থেকে কোন সমস্যা না হলেও দুপুরের খাবারের পরে হঠাৎ করে কোদাল নিয়ে এসে তুষার বড়ুয়া তার ভাই গিন্নি বড়ুয়ার নির্মাণাধীন দেওয়ালের প্লাস্টারে কোপানো শুরু করে। পরে গিন্নি বড়ুয়া ছুটে আসলে গিন্নি বড়ুয়ার গায়ে কোপ দেয় ছোট ভাই তুষার বড়ুয়া। ছাড়িয়ে আনতে গেলে বড় ভাই মানিক বড়ুয়ার গায়েও কোপ দেয় ছোট ভাই।

এবিষয়ে মডেল থানার ডিউটি অফিসের কর্তব্যরত অফিসার এস আই হুমায়ূন আহমেদ বলেন, এমন ঘটনার কোনো অভিযোগ এখনও পর্যন্ত হয়নি।