স্থানীয়দের হাতে চবি শিক্ষার্থী মারধরের শিকার

সামিউল করিম,চবি প্রতিনিধি:::

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) এক শিক্ষার্থীকে রড দিয়ে পিটিয়ে জখম করেছে স্থানীয়রা। বিশ্ববিদ্যালয়ের রেলক্রসিং এলাকায় এক দোকানীর সাথে বাকবিতন্ডার একপর্যায়ে আরো দুই তিনজন এসে রড দিয়ে পিটিয়ে মাথা, হাত ও পায়ে নির্মমভাবে জখম করে ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীকে। এসময় ওই শিক্ষার্থীর কাছ থেকে তার মোবাইল ও মানিব্যাগ ছিনিয়ে নেয় হামলাকারীরা।

শনিবার ভোর রাতে পৌনে চারটার দিকে এই ঘটনা ঘটে। মারধরের শিকার ওই শিক্ষার্থী হলেন শাহরিয়ার শাকিল। তিনি যোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের ছাত্র। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে চবি মেডিক্যালের পাঠানো হলে সেখান থেকে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। মারধরের শিকার শিক্ষার্থীর অবস্থা এখন আশঙ্কামুক্ত বলে জানা গেছে।

মারধরের ঘটনায় প্রধান অভিযুক্ত রেল ক্রসিং এলাকার মালেক স্টোরের সত্ত্বাধিকারী বলে জানা গেছে।

ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী শাহরিয়ার শাকিল বলেন, দোকানির সাথে বাকবিতন্ডা হলে উনি হঠাৎ হাতে রড নিয়ে আমাকে আঘাত করতে শুরু করে, তখন তার সাথে আরো কয়েকজন যুক্ত হয়। তারা আমার মোবাইল ও মানিব্যাগ কেড়ে নেয়।

ভুক্তভোগীর সঙ্গে থাকা যোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের চতুর্থ বর্ষের ছাত্র মাহবুব হাসান বলেন, ‘রাতে শাকিল রেলক্রসিং এর একটি দোকানে যায়।

দোকানে বসলে, দোকানদার অশোভনভাবে তাকে বের হয়ে যেতে বলেন। এ নিয়ে দোকানদারের সঙ্গে তার তর্কাতর্কি হয়। একপর্যায়ে দোকানদার তাকে ‘ডাকাত’ বলে রড দিয়ে মারধর শুরু করে করে। পরে আশেপাশের আরো কয়েকজন মারধরে যোগ দেয়।’

তিনি বলেন, ‘তার পায়ে রড ঢুকিয়ে দেয়া হয়, ডানহাতে, মাথায় ও সারা শরীরের রড দিয়ে আঘাত করে। তার পায়ে, হাতে, কপালে অনেকগুলো সেলাই লাগে। পুরো শরীর জুড়ে রড দিয়ে আঘাত করার দাগ আছে। এ সময় তার মোবাইল, মানিব্যাগও নিয়ে ফেলা হয়।’

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. নূরুল আজিম সিকদার বলেন,আমরা বিষয়টি জেনেছি। ভুক্তভোগীর বন্ধুদের বলেছি প্রক্টর অফিস ও থানায় অভিযোগ দিতে।বিষয়টি মীমাংসার চেষ্টা চলছে।

বাংলাদেশ মেইল /নাদিরা শিমু/NS