দক্ষিণ জেলা আ.লীগের উপদেষ্টা হলেন চবির অধ্যাপক ড. শাহাদাত হোসেন

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম:

চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সদ্য ঘোষিত পূর্ণাঙ্গ কমিটির উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য হিসেবে জায়গা পেয়েছেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) অধ্যাপক ড. শাহাদাত হোসেন। চট্টগ্রামের সাতকানিয়া উপজেলার বাসিন্দা এই শিক্ষক বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্র সরকারের সর্বোচ্চ মর্যাদাসম্পন্ন ফুলব্রাইট ভিজিটিং প্রফেসর হিসেবে ইউনিভার্সিটি অব টেক্সাসে কর্মরত।

গত ৪ সেপ্টেম্বর চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের ৭৫ সদস্যের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হয় কেন্দ্র থেকে। পূর্ণাঙ্গ কমিটির উপদেষ্টা পরিষদে ২৭ জনকে সদস্য করা হয়। তাঁদের মধ্যে ১২ সদস্য হলেন অধ্যাপক ড. শাহাদাত হোসেন।

ছাত্রজীবনে চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (চুয়ে) ছাত্রলীগের রাজনীতিতে সক্রিয় ছিলেন। ২০১৪ সালে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় উদ্বুদ্ধ প্রগতিশীল শিক্ষকদের হলুদ দলের প্রার্থী হিসেবে তিনি ডিন নির্বাচন করেন। তিনি সাতকানিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সংসদের (এম ছিদ্দিক-অধ্যাপক আমিনুল ইসলাম বাদশাহ) সদস্য ছিলেন। ইউজিসি আয়োজিত মুজিব শতবর্ষ আইডিয়া প্রতিযোগিতার চেয়ার হিসেবেও সাম্প্রতিক সময়ে তিনি দায়িত্ব পালন করেছেন।

দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা কমিটিতে সদস্য করায় ড. শাহাদাত হোসেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানান। তিনি বলেন, মেধা ও প্রজ্ঞার মাধ্যমে আওয়ামী লীগকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া এখন মূল উদ্দেশ্য।

সম্প্রতি বিশ্বের তিনটি মর্যাদাসম্পন্ন স্কলারশিপ অর্জন করেন অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ শাহাদাত হোসেন। স্কলারশিপগুলো হলো ব্রিটিশ সরকারের কমনওয়েলথ, ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের ইরাসমুস মুন্ডুস এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সরকারের ফুলব্রাইট। এছাড়া শাহাদাত হোসেন ২০০৯ সালে কমনওয়েলথ স্কলারশিপ অর্জন করেন। পরে ২০১১ ও ২০১৩ সালে ইরাসমাস মুন্ডুস স্কলারশিপ অর্জন করেন। সবশেষ ২০২২ সালে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি উদ্ভাবনের অগ্রগতিতে উল্লেখযোগ্য অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সরকারের সর্বোচ্চ মর্যাদাসম্পন্ন ফুলব্রাইট স্কলারশিপ অর্জন করেন। তা ছাড়া যুক্তরাষ্ট্রের স্ট্যামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের র‍্যাংকিং ডেটাবেইস অনুযায়ী বিশ্বের সবচেয়ে প্রসিদ্ধ ও প্রভাবশালী বিজ্ঞানীদের তালিকায়ও তিনি গত বছর স্থান পান।
এর আগে তিনি এলপার ডগার (এডি) সায়েন্টিফিক ইনডেক্স-২০২১-এ প্রকাশিত বিশ্বসেরা বিজ্ঞানীর তালিকায় স্থান পেয়েছিলেন। ড. শাহাদাত হোসেনের আন্তর্জাতিক বিভিন্ন জার্নালে প্রকাশিত দুই শতাধিক গবেষণা প্রবন্ধ রয়েছে। অসংখ্য জনপ্রিয় বইয়ের মুখবন্ধও লিখেছেন তিনি। তা ছাড়া ইউরোপের বিভিন্ন বিশ্বসেরা বিশ্ববিদ্যালয়ে তিনি অতিথি শিক্ষক হিসেবে বর্তমানে অধ্যাপনা করছেন।

বিশ্বসেরা বিজ্ঞানীর তালিকায়ও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি) থেকে শ্রেষ্ঠ গবেষক এবং বিজ্ঞানী হিসেবে প্রথম হন শাহাদত হোসেন। সম্প্রতি অ্যালপার ডগার (এডি) সায়েন্টিফিক ইনডেক্স-২০২১ এ বিশ্বসেরা বিজ্ঞানীর ওই তালিকা প্রকাশিত হয়। সংস্থাটির ওয়েবসাইটে প্রকাশিত তথ্য থেকে জানা যায়, বিশ্বসেরা বিজ্ঞানীর তালিকায় মোট ৭ লাখ ৯ হাজার ৬৬৩ জন এবং বাংলাদেশ থেকে ১ হাজার ৭৯৮ জন বিজ্ঞানী রয়েছেন। র‌্যাংকিংয়ে ১২টি ক্যাটাগরিতে বিশ্বের ২০৬টি দেশের বিজ্ঞানীর তালিকা প্রকাশ করা হয়।
শাহাদত হোসেনের আন্তর্জাতিক বিভিন্ন জার্নালে প্রকাশিত ১৭০টিরও অধিক গবেষণা প্রবন্ধ রয়েছে। অসংখ্য বইয়ের মুখবন্ধও লিখেছেন তিনি। এছাড়াও বঙ্গবন্ধু শিশু কিশোর মেলাসহ বিভিন্ন সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠনের উপদেষ্টা হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। তাছাড়া সামাজিক, সাংস্কৃতিক, রাজনৈতিক ক্ষেত্রেও তার সমান বিচরণ রয়েছে।

বাংলাদেশ মেইল /নাদিরা শিমু/NS