কর্ণফুলী গ্যাসের প্রধান কার্যালয়ের সামনে মানববন্ধন
গ্যাস সংকট দূর করা না হলে কঠোর কর্মসূচির হুশিয়ারি চট্টগ্রাম নাগরিক ফোরামের

নিজস্ব প্রতিবেদক 

চট্টগ্রাম শহরের বিভিন্ন এলাকায় তীব্র গ্যাস সংকট ও গ্রাহক ভোগান্তি দুর করার দাবিতে মানববন্ধন করেছে চট্টগ্রাম নাগরিক ফোরাম। বুধবার ( ১০ জানুয়ারি)  কর্ণফুলী গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশনের কার্যালয়ের সামনে এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয় ।

বুধবার বেলা ১২টায় (দুপুর) ষোলশহরস্থ কর্ণফুলী গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন প্রধান কার্যালয়ের সামনে ভুক্তভোগী চট্টগ্রামস্থ সাধারন জনসাধারনরকে সাথে নিয়ে এই মানববন্ধনে চট্টগ্রাম নাগরিক ফোরামের  সভাপতি ব্যারিস্টার মনোয়ার হোসেন বলেন, বন্দরনগরী চট্টগ্রামের বাসিন্দারা তীব্র গ্যাস সংকটের সম্মুখীন হচ্ছেন। এ অবস্থায় রান্নার জন্য তাদের বিকল্প উপায়ে যেতে বাধ্য হতে হচ্ছে কিংবা বাইরে থেকে খাবার কিনে খেতে হচ্ছে। শিল্প কারখানায় তীব্র গ্যাস সংকটের কারনে উৎপাদন ব্যাহত হচ্ছে।

তিনি আরো বলেন বলেন, চট্টগ্রাম নাগরিক ফোরাম সব সময় চট্টগ্রামের মানুষের দুঃখ,দুর্দশা তুলে ধরে। বর্তমান মাননীয় প্রধানমন্ত্রী এই চট্টগ্রামের উন্নয়নের দায়িত্ব নিজ হাতে নিয়েছেন। কর্ণফুলী টানেল, কক্সবাজার পর্যন্ত রেলপথ সম্প্রসারণ জলাবদ্ধতা নিরসন প্রকল্পে হাজার হাজার কোটি টাকা তিনি বরাদ্দ দিয়েছেন কিন্তু গ্যাস সংকট, জলাবদ্ধতা সমস্যা ও নতুন কালুরঘাট সেতু নির্মাণ না করার কারনে নানা উন্নয়নের সুফল মানুষ আজ ভোগ করতে পারছে না।

ব্যারিস্টার মনোয়ার আরে বলেন, বৃহত্তর চট্টগ্রামে দীর্ঘদিন যাবত শিল্প ও আবাসিক খাতে চরম গ্যাস সংকট ও গ্রাহকদের ভোগান্তি নিরসনের দাবীতে আমরা আজ দলমত নির্বিশেষে সর্বস্তরের জনগণের অংশগ্রহণে মাধ্যমে চট্টগ্রাম নাগরিক ফোরামের উদ্যোগে মানববন্ধন শেষে এই বিষয়ে মূল দ্বায়িত্বশীল হিসেবে কর্ণফুলী গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লি এর বরাবরে এই স্মারকলিলিপি প্রদান করছি।

সংগঠনের মহাসচিব মো কামাল উদ্দিনের পরিচালনায় এতে আরো বক্তব্য রাখেন যথাক্রমে সাবেক এম পি মাজহারুল হক শাহ চৌধুরী, সাবেক মন্ত্রী জহুর আহমদ চৌধুরীর সুযোগ্য সন্তান ও আওয়ামী লীগ নেতা মোহাম্মদ জসীম উদ্দীন, চট্টগ্রাম নাগরিক ফোরামের কামরুল ইসলাম, সাংবাদিক মীর্জা ইমতিয়াজ শাওন, ফোরামের সাংগঠনিক সম্পাদক মনসুর আলম, ফোরামের নেতা মাসুদ খান, সৃজনশীল প্রকাশনা পরিষদের সভাপতি রিদয় হাসান বাবু, বেকারি মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আশিষ চৌধুরী, মটর পার্টস ব্যবসায়ী সমতির সাধারণ সম্পাদক বুলবুল শরীফ,মানবাধিকার নেতা সাংবাদিক সেলিম উদ্দিন, কর্ণফুলী গ্যাস কোম্পানির ঠিকাদার সমিতির যুগ্ম সম্পাদক মোহাম্মদ সেলিম হোসেন চৌধুরী, কবি তশলিম খাঁ, মানবাধিকার সংগঠক মো: আকতার , সাংবাদিক শফিকুল ইসলাম, মহিলা নেতা শারমিন, মহিলা নেতা মেহেরুন নিপা, শ্রমীক লীগ নেতা মোঃ আকবর, ফোরামের বন্দর থানার নেতা ও বন্দর শ্রমিক লীগ সাধারণ সম্পাদক মোহাম্ম্মদ ফোরকান, বায়েজিদ থানার নেতা মোঃ নুর, মোহরা থানার নেতা আবদুল কাদের, পাচলাইশ থানা নেতা আবু বকর সিদ্দীক, চান্দগাও থানা নেতা আবদুল মান্নান প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

মানববন্ধন শেষে নাগরিক ফোরামের নেতৃবৃন্দ কর্ণফুলী গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন লিমিটেডের ম্যানেজিং ডাইরেক্টর প্রকৌশলী আবু সাকলায়েনের কাছে স্মারকলিপি প্রদান করে নাগরিক ফোরামের নেতৃবৃন্দ।

স্মারকলিপিতে বলা হয় যে, বৃহত্তর চট্টগ্রামের শিল্প ও আবাসিক খাতে চলমান গ্যাস সংকট ও গ্রাহক ভোগান্তি নিরসনে জরুরী পদক্ষেপ নিয়ে নিরবচ্ছিন্ন গ্যাস সরবরাহ নিশ্চিতকরণ করতে হবে। গ্রাহকদের অসরবরাহকৃত গ্যাসের জন্য বিল করা যাবে না। ইতিমধ্যে এ ধরনের সংগৃহীত বিলের অর্থ গ্রাহকদের ফেরত দিতে হবে। সম্প্রতি চট্টগ্রামে সরবরাহকৃত ২৮০ মিলিয়ন ঘনফুট থেকে ৩০ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস মেঘনা ঘাটে বেসরকারি বিদ্যুৎ খাতে দেওয়ার নির্দেশনা জারি করা হয়েছে। এমন সময়ে যদি আরো ৩০ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস অন্য একটি অঞ্চলে বিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য দেওয়া হয়, তাহলে গ্যাস সংকটের কারণে চট্টগ্রামবাসীর চলমান এ ভোগান্তি আরো তীব্র আকার ধারণ করবে। দীর্ঘদিন যাবত সমস্যা বারবার দেখা দিয়েছে বৃহত্তর চট্টগ্রামে, কিন্তু শুধু আশারবানী শুনানো হলেও গ্যাসের তীব্র সংকট নিরসনে কর্ণফুলী গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেড ব্যর্থ হয়েছে। চট্টগ্রামে গ্যাস সংকট ও গ্রাহক ভোগান্তি নিরসনে ২ সপ্তাহের আল্টিমেটাম দেয়া হলো অন্যথায় সকলের সাথে আলোচনা করে ব্যাপক কর্মসূচীর মাধ্যমে দাবি আদায় করা হবে।